No icon

সুন্দরবন ঘেঁষে বসতি

  • ভোলা নদীর চরে নতুন করে বসতি ও আশ্রয়ণ প্রকল্প গড়ে উঠছে।
  • সুন্দরবনের প্রাকৃতিক সম্পদ ও জীববৈচিত্র্য হুমকির মুখে পড়বে।

সুন্দরবনের চারপাশে দখল-দূষণে এমনিতেই ঝুঁকির মধ্যে বিশ্বের সর্ববৃহৎ শ্বাসমূলীয় এই বন। এবার স্থানীয় প্রশাসন বনটির ভোলা নদীতে জেগে ওঠা চরের জমি বন্দোবস্ত দিয়ে সুন্দরবনকে নতুন ঝুঁকির মুখে ফেলেছে। নির্দিষ্ট মেয়াদের জন্য এই জমির ‘দখলও বিক্রি’ হচ্ছে। একই চরে দুটি আশ্রয়ণ প্রকল্পের আওতায় সেখানকার মাটিভরাটের কাজ শুরু হয়েছে।

ভোলা নদীর চরটির অবস্থান বাগেরহাটের শরণখোলা উপজেলার সোনাতলা গ্রামে। সুন্দরবন ঘেঁষে এই চরে নতুন করে বসতি ও আশ্রয়ণ প্রকল্পের বিষয়ে আপত্তি জানিয়ে ইতিমধ্যে বন বিভাগ পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয় এবং জেলা প্রশাসনকে আলাদা চিঠি দিয়েছে। বন বিভাগ বলছে, জেগে ওঠা চরের (চরপয়স্তি) জমিতে বসতির ফলে সুন্দরবনের প্রাকৃতিক সম্পদ ও জীববৈচিত্র্য হুমকির মুখে পড়বে। চরপয়স্তি এলাকার একদিকে বন, অন্যদিকে প্রত্যন্ত গ্রাম। ওই চরে আশ্রয়ণ প্রকল্প বাস্তবায়িত হলে ছিন্নমূল মানুষ জীবিকার প্রয়োজনে জঙ্গলের ওপর সম্পূর্ণভাবে নির্ভরশীল হয়ে পড়বে। এতে বনজ সম্পদসহ জীববৈচিত্র্য ধ্বংসের আশঙ্কা থাকে। এ ছাড়া সুন্দরবনের কাছে এমন প্রকল্পের ফলে বনের বাঘ কাছের গ্রামগুলোতে ঢুকে পড়তে পারে। এ ছাড়া আশ্রয়ণ প্রকল্প এলাকাটি ভোলা নদীর চর এলাকা, যা সংরক্ষিত বনাঞ্চল থেকে মাত্র ৫০০ ফুট দূরে।

সূত্রঃ প্রথম আলো 

Comment