A PHP Error was encountered

Severity: Notice

Message: Undefined variable: newsPosition

Filename: models/Write_setting_model.php

Line Number: 188

Backtrace:

File: /home/sottokonthonews/public_html/application/models/Write_setting_model.php
Line: 188
Function: _error_handler

File: /home/sottokonthonews/public_html/application/controllers/Print_article.php
Line: 11
Function: home_category_position

File: /home/sottokonthonews/public_html/index.php
Line: 316
Function: require_once

Sottokonthonews.com || সত্যকণ্ঠ নিউজ ডটকম
Sottokonthonews.com || সত্যকণ্ঠ নিউজ ডটকম
বিশ্বকাপ না জিততে পারলে অবসরের ইঙ্গিত মেসির
Monday, 11 Jun 2018 10:53 am
Sottokonthonews.com || সত্যকণ্ঠ নিউজ ডটকম

Sottokonthonews.com || সত্যকণ্ঠ নিউজ ডটকম

আগেও একবার অবসর নিয়েছিলেন মেসি, ২০১৬ সালে কোপা আমেরিকার ফাইনালে হারার পর হতাশায় জাতীয় দল থেকে সরে এসেছিলেন। পরে দলের দুরবস্থা দেখে আবারও ফিরে এসেছেন। কিন্তু এবার বিশ্বকাপের পর আসলেই জাতীয় দল থেকে অবসরে যেতে পারেন মেসি


আর্জেন্টিনার হয়ে দীর্ঘ ক্যারিয়ারে নিজের পক্ষে যতটুকু সম্ভব, সবটুকুই দিয়েছেন লিওনেল মেসি। এতেও জাতীয় দলের হয়ে কোনো শিরোপা জেতা হয়নি তাঁর। টানা তিন বছরে বিশ্বকাপ আর দুটি কোপা আমেরিকার ফাইনালে উঠেও খালি হাতে ফিরতে হয়েছে। এবারই মেসির জন্য শেষ সুযোগ, অমরত্ব অর্জনের জন্য। মেসি নিজেও জানেন সেটা। এ জন্যই এবার টুর্নামেন্টের পরে জাতীয় দলের বুটজোড়া পাকাপাকিভাবে তুলে রাখার চিন্তাভাবনা শুরু করে দিয়েছেন আর্জেন্টাইন অধিনায়ক।

অবসর কি এবার আসলেই নেবেন মেসি? মেসি নিজেও অনিশ্চিত, ‘জানি না, সেটা নির্ভর করছে এই টুর্নামেন্টে আমরা কিরকম করি, টুর্নামেন্ট কীভাবে শেষ হয় তার ওপর।’ নিজের দেশে মেসিদের তিন ফাইনাল খেলার অর্জনকে খাটো করে দেখা হয় এটাও মানেন গত বিশ্বকাপের সেরা খেলোয়াড়, ‘টানা তিন ফাইনালে ওঠা সহজ নয়, হ্যাঁ, টুর্নামেন্ট জেতা অবশ্যই সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ, কিন্তু সে পর্যন্ত যাওয়াটাও কম কিছু না।’

কোনো ভাবে প্রথম রাউন্ডের বাধা পেরিয়ে নকআউট পর্বে উঠলেই বেলজিয়াম, জার্মানি, ফ্রান্স, স্পেন—শক্তিশালী সব দলের মুখোমুখি হতে হবে মেসিদের। কিন্তু এতে ভয় পাচ্ছেন না, সাম্পাওলির ওপর পূর্ণ আস্থা রয়েছে তাঁর, ‘আমাদের অনেক প্রতিভাবান খেলোয়াড় আছে যা অন্য দলগুলো তাদের স্কোয়াডে পেতে চাইবে, তাই আমরা কাউকে হিংসার চোখে দেখি না।’

সূত্রঃ প্রথম আলো