A PHP Error was encountered

Severity: Notice

Message: Undefined variable: newsPosition

Filename: models/Write_setting_model.php

Line Number: 188

Backtrace:

File: /home/sottokonthonews/public_html/application/models/Write_setting_model.php
Line: 188
Function: _error_handler

File: /home/sottokonthonews/public_html/application/controllers/Print_article.php
Line: 11
Function: home_category_position

File: /home/sottokonthonews/public_html/index.php
Line: 316
Function: require_once

Sottokonthonews.com || সত্যকণ্ঠ নিউজ ডটকম
Sottokonthonews.com || সত্যকণ্ঠ নিউজ ডটকম
জাপানে বন্যায় মৃতের সংখ্যা বাড়ছে, আরও সতর্কতা
Thursday, 12 Jul 2018 11:22 am
Sottokonthonews.com || সত্যকণ্ঠ নিউজ ডটকম

Sottokonthonews.com || সত্যকণ্ঠ নিউজ ডটকম

জাপানে রেকর্ড পরিমাণ বৃষ্টিপাতে বিভিন্ন জায়গায় বন্যায় মৃত মানুষের সংখ্যা বেড়ে ১৯৯-তে পৌঁছেছে। অনেকে নিখোঁজ।

বর্তমানে বৃষ্টি কমে এলেও বন্যার বিষয়ে নতুন সতর্কতা জারি করা হয়েছে। একই সঙ্গে তাপমাত্রা প্রচণ্ড বেড়ে যাওয়ায় গরমজনিত অসুস্থতা (হিটস্ট্রোক)এড়াতেও সতর্কতা জারি হয়েছে।

সরকারের এক মুখপাত্র ইউসিগিদে সুগা এ তথ্য জানান বলে এএফপির খবরে জানানো হয়।

বন্যাকবলিত এলাকার লোকজন জরুরি সেবাদান প্রতিষ্ঠানের দেওয়া পানি সংগ্রহ করছে। মিহারা দাইনি জুনিয়র হাইস্কুল, হিরোশিমা, জাপান, ৯ জুলাই। ছবি: রয়টার্সবন্যাকবলিত এলাকার লোকজন জরুরি সেবাদান প্রতিষ্ঠানের দেওয়া পানি সংগ্রহ করছে। মিহারা দাইনি জুনিয়র হাইস্কুল, হিরোশিমা, জাপান, ৯ জুলাই। ছবি: রয়টার্সএই মুখপাত্র বলেন, উদ্ধার অভিযান চলছে। তিন দশকে দেশটিতে এমন ভয়াবহ প্রাকৃতিক দুর্যোগ আর হয়নি।

দেশটির প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে গতকাল বুধবার ওকায়ামা এলাকায় একটি আশ্রয়শিবির পরিদর্শন করেন। এটি ব্যাপক দুর্যোগকবলিত এলাকাগুলোর একটি। ঠাঁই নেওয়া লোকজনের মধ্যে কয়েকজনের সঙ্গে তিনি কথা বলেছেন। এ নিয়ে তিনি প্রকাশ্যে কোনো মন্তব্য করেননি। কাল শুক্রবার আরও একটি এলাকা পরিদর্শনে যাওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে। একই সঙ্গে তিনি চারদেশীয় সফর বাতিল করেছেন।

বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত বাড়িঘর। মাবি, কুরাসিকি, ওকায়ামা, জাপান, ৮ জুলাই। ছবি: রয়টার্সবন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত বাড়িঘর। মাবি, কুরাসিকি, ওকায়ামা, জাপান, ৮ জুলাই। ছবি: রয়টার্সস্থানীয় গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়, জাপানের মধ্যাঞ্চল ও পশ্চিমাঞ্চলের ব্যাপক এলাকায় স্কুল, ব্যায়ামাগারসহ বিভিন্ন আশ্রয়শিবিরে ১০ হাজারের বেশি মানুষ ঠাঁই নিয়েছে। ওকাদা এলিমেন্টারি স্কুলে প্রায় ৩০০ জন রাতে কাটায়। স্কুলের ব্যায়ামাগারে মেঝেতে ঘুমিয়েছে তাদের অনেকে। সরকার এসব লোককে পুনর্বাসিত করতে জরুরি তহবিল দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার সকালে প্রধানমন্ত্রী আবে এক বৈঠকে বলেছেন, ‘লোকজনকে যাতে আশ্রয়শিবিরে অস্বস্তি নিয়ে থাকতে না হয়, এ জন্য করণীয় সব আমরা করব।’

ভারী বৃষ্টিতে বন্যাকবলিত কুরাসিকি এলাকা। ওকাহামা, জাপান, ৮ জুলাই। ছবি: রয়টার্সভারী বৃষ্টিতে বন্যাকবলিত কুরাসিকি এলাকা। ওকাহামা, জাপান, ৮ জুলাই। ছবি: রয়টার্সজাপানে এত বৃষ্টির বিষয়ে সরকারের মুখপাত্র ইউসিগিদে সুগা বলেন, ‘দেশটির দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা নীতি পর্যালোচনা করে দেখা হবে। সম্প্রতি কয়েক বছরেও অতীতের তুলনায় ভারী বৃষ্টিতে আমাদের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। কীভাবে এ ঝুঁকি কমানো যায়, সরকার তা পর্যালোচনা করবে।’

বন্যার পানিতে ডুবে যাওয়া একটি বাড়ি থেকে লোকজনকে উদ্ধারে হেলিকপ্টারে করে ছুটে যান উদ্ধারকর্মীরা। কুরাসিকি, ৭ জুলাই। ছবি: রয়টার্সবন্যার পানিতে ডুবে যাওয়া একটি বাড়ি থেকে লোকজনকে উদ্ধারে হেলিকপ্টারে করে ছুটে যান উদ্ধারকর্মীরা। কুরাসিকি, ৭ জুলাই। ছবি: রয়টার্সএক সপ্তাহ ধরে চলা বৃষ্টি এখন অনেকটাই ধরে এসেছে। তবে এখনো বন্যার নতুন সতর্কতা জারি করা হয়েছে। গতকাল হিরোশিমা অঞ্চলের ফুকুয়ামা শহরে একটি লেকের পানি দুকূল ছাপিয়ে যাওয়ার আশঙ্কায় লোকজনকে ঘরবাড়ি ছেড়ে যেতে বলা হয়েছে। গত মঙ্গলবারও হিরোশিমার ফুচু শহরে একই ধরনের নির্দেশ জারি করা হয়। সরকার পার্বত্য এলাকায় নতুন করে ভূমিধসের সতর্কতা জারি করেছে।

বৃষ্টির পর সেসব অঞ্চলে এখন প্রচণ্ড গরম অনুভূত হচ্ছে। তাপমাত্রা ৩৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত উঠেছে। তাই যেসব মানুষ এখন আশ্রয়শিবিরে রয়েছে বা বন্যায় যাদের বাড়িঘর ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে বিদ্যুৎ ও পানির সরবরাহ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে, তাদের জন্য হিটস্ট্রোকের বিষয়ে সতর্কতা জারি করা হয়েছে।

আশ্রয়শিবিরে ঠাঁই নেওয়া লোকজনের সঙ্গে কথা বলেন শিনজো আবে। মাবি, ওকায়ামা, ১১ জুলাই। ছবি: এএফপিআশ্রয়শিবিরে ঠাঁই নেওয়া লোকজনের সঙ্গে কথা বলেন শিনজো আবে। মাবি, ওকায়ামা, ১১ জুলাই। ছবি: এএফপিইউসিগিদে সুগা বলেন, ভবিষ্যতে রৌদ্রোজ্জ্বল ও প্রচণ্ড গরম পড়বে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। তাই যেসব লোকজন এখন ঘরছাড়া এবং যারা ক্ষতিগ্রস্ত বাড়িঘর ঠিক করছে, তাদের হিটস্ট্রোক এড়াতে সাবধানে থাকতে বলা হয়েছে।

সূত্রঃ প্রথম আলো