No icon

অডিও হাতে এসেছে, তদন্ত চলছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

কক্সবাজারে মাদকবিরোধী অভিযানে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ টেকনাফের পৌর কাউন্সিলর একরামুল হকের নিহত হওয়ার ঘটনা নিয়ে প্রকাশিত অডিও হাতে পেয়েছেন বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেছেন, ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে তদন্ত চলছে।

আজ রোববার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে রাজধানীর সিদ্ধেশ্বরীতে স্ট্যামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসে এক অনুষ্ঠান শেষে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাংবাদিকদের এ কথা বলেন। দেশব্যাপী মাদকবিরোধী ফেস্টুন বিতরণ ও উদ্বুদ্ধকরণ কর্মসূচির উদ্বোধনী ঘোষণা করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, যত দিন না পর্যন্ত মাদক নির্মূল হবে, তত দিন মাদক ব্যবসায়ীদের তালিকা হালনাগাদ হতে থাকবে, অভিযানও চলবে।

মাদকবিরোধী অভিযানে টেকনাফে গত ২৬ মে একরামুল হক নিহত হন। তাঁকে বাসা থেকে ডেকে নেওয়ার পর হত্যা করা হয়েছে বলে তাঁর পরিবার অভিযোগ করেছে।

একরামুল নিহত হওয়ার ঘটনা অডিও ইউটিউবে প্রকাশ হওয়ার পর তা সামাজিক নেটওয়ার্কে ছড়িয়ে পড়েছে। এ ঘটনা নিয়ে সামাজিক নেটওয়ার্কে ব্যাপক ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

র‍্যাব বলেছে, প্রকাশ হওয়া অডিও তারা খতিয়ে দেখছে।

সিদ্ধেশ্বরীতে আজকের অনুষ্ঠানে মাদকবিরোধী অভিযান নিয়ে কথা বলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। তিনি বলেন, একটা যুদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। সর্বোচ্চ যুদ্ধ মাদকের বিরুদ্ধে। মাদকের আগ্রাসন সবাইকে ভাবিয়েছে।

আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, ‘বন্দুকযুদ্ধে যারা নিহত হচ্ছে, তাদের কিছুতেই আমরা কন্ট্রোল করতে পারছিলাম না।’

বন্দুকযুদ্ধে নিহত হওয়া প্রসঙ্গে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, কেউ নিহত হোক বা আহত হোক তা তাঁদের কাম্য নয়।

আসাদুজ্জামান খান বলেন, ‘যুবসমাজকে বাঁচাতে হবে। মেধা নষ্ট হতে দেওয়া যাবে না। সে জন্যই মাদকের বিরুদ্ধে সর্বাত্মক যুদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। আমাদের জয়ী হতেই হবে।’

অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে স্ট্যামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য মুহাম্মদ আলী নকী বলেন, সারা বিশ্বেই মাদকের ব্যবহার বাড়ছে। প্রবৃদ্ধি বাড়লে এর প্রবণতাও বেড়ে যায়। এ অবস্থায় দুর্নীতি, মাদক, জঙ্গিবাদ হাত ধরাধরি করে এগিয়ে যায়। এটাকে থামাতে হবে। মাদক সরবরাহকারীদের প্রতিহত করতে হবে।

সূত্রঃ প্রথম আলো 

Comment