No icon

বিশ্বকাপের উদ্বোধনী আসর মাতাবেন যাঁরা

আর মাত্র তিন দিন। এরপরই পর্দা উঠবে বছরের সবচেয়ে বড় ক্রীড়া উৎসবের। বিশ্বের কোটি কোটি মানুষ টেলিভিশনের সামনে বসে উপভোগ করতে পারবেন ‘ফিফা বিশ্বকাপ ২০১৮’ আয়োজনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। নাচ আর গানে স্বাগতিক দেশ রাশিয়ার সংস্কৃতি ও ঐতিহ্য এদিন বিশ্ববাসীর সামনে তুলে ধরা হবে।

এবার মস্কোর লুঝনিকি স্টেডিয়ামে হবে ফিফা বিশ্বকাপের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। এটি রাশিয়ার জাতীয় স্টেডিয়াম। সেখানে একসঙ্গে প্রায় ৮০ হাজার লোক খেলা দেখতে পারেন। আর এই মাঠেই ২০১৮ সালের ফিফা বিশ্বকাপের চূড়ান্ত পর্ব অনুষ্ঠিত হবে। বাংলাদেশ সময় আগামী বৃহস্পতিবার রাত নয়টায় শুরু হবে এবারের আসরের প্রথম ম্যাচ। স্বাগতিক দল রাশিয়া আর সৌদি আরবের উদ্বোধনী ম্যাচ শুরুর আনুমানিক দুই ঘণ্টা আগে শুরু হবে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শুরু হবে উইল স্মিথ ও নিকি জ্যামের এবারের টুর্নামেন্টের অফিশিয়াল থিম সং ‘লিভ ইট আপ’ দিয়ে। সঙ্গে থাকবে নাচ আর আতশবাজি। ২০১৪ সালের ফুটবল বিশ্বকাপের আসর জেনিফার লোপেজ আর পিট বুলের গান দিয়ে শুরু হয়েছিল। এবারের অনুষ্ঠানে আর কে কে পরিবেশনা করবেন, তা নিয়ে ফিফার পক্ষ থেকে এখনো কোনো আনুষ্ঠানিক ঘোষণা আসেনি।

শোনা যাচ্ছে, লুঝনিকি স্টেডিয়ামের পাশাপাশি একই সময় মস্কোর রেড স্কয়ারেও বিশ্বকাপ উপলক্ষে কনসার্ট আয়োজন করা হয়েছে। সেখানে বর্ষীয়ান স্প্যানিস শিল্পী প্ল্যাসিদো দোমিংগো ও খন দিয়েগো ফ্লোরেজের পরিবেশনা থাকবে।

শেষবার ব্রাজিলে অনুষ্ঠিত ফিফা বিশ্বকাপের জমকালো উদ্বোধনী আসর মাতিয়েছিলেন সংগীতশিল্পী পিটবুল ও শাকিরা। ‘ইউ আর ওয়ান’ গানটি একসঙ্গে গেয়েছিলেন তাঁরা। তখন বিভিন্ন পরিবেশনার মাধ্যমে ব্রাজিলের সংস্কৃতি ও ঐতিহ্যকে তুলে ধরা হয়েছিল। তবে সাম্প্রতিক সময়ে বিশ্বকাপের থিম সংয়ের কথা বললে এখনো মানুষের মনে ২০১০ সালের ফিফা বিশ্বকাপের সেই ‘ওয়াকা ওয়াকা’ গানের সুরই ভেসে ওঠে। দক্ষিণ আফ্রিকায় অনুষ্ঠিত সেই বিশ্বকাপের থিম সংটি গেয়েছিলেন শাকিরা।

সূত্রঃ প্রথম আলো 

Comment