No icon

বিদায় নিচ্ছেন ব্যোমকেশ?

সত্যান্বেষী ব্যোমকেশ বক্সী ‘বিদায়’ নিচ্ছেন। সেলুলয়েডের পর্দায় সত্য অন্বেষণে তাঁর ক্ষুরধার মস্তিষ্কের খেলা ভক্তরা আর দেখতে পাবেন না—ভাবুন তো একবার! না, মন খারাপের কোনো কারণ নেই ব্যোমকেশ-ভক্তদের। ব্যোমকেশকে নিয়ে পরিচালক দেবালয় ভট্টাচার্যের নির্মিত নতুন ছবির নাম ‘বিদায় ব্যোমকেশ’। ছবির নাম শুনে অনেকেই ভাবছেন, এবার হয়তো বিদায় নিচ্ছেন ব্যোমকেশ বক্সী। তবে চিন্তার কোনো কারণ নেই। ব্যোমকেশের মতো এমন জনপ্রিয় চরিত্রের যবনিকা এত সহজে হয়? নিশ্চয়ই আবারও নতুন কোনো সত্যের অনুসন্ধান করতে দেখা যাবে ব্যোমকেশ বাবুকে।

ভারতীয় গণমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, ব্যোমকেশের নতুন ছবির গল্প অতীতের মতো শরদিন্দু বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপন্যাস থেকে নেওয়া নয়। ব্যোমকেশ, সত্যবতী আর অজিত চরিত্র ধার করে পরিচালক দেবালয় ভট্টাচার্য নিজেই লিখেছেন ছবির গল্প। তবে তিনি শরদিন্দু বন্দ্যোপাধ্যায়ের পরিবারের অনুমতি নিয়েই এই গল্প লিখেছেন।‘বিদায় ব্যোমকেশ’ ছবিতে আবির চট্টোপাধ্যায়‘বিদায় ব্যোমকেশ’ ছবিতে আবির চট্টোপাধ্যায়সদ্য মুক্তি পাওয়া ‘বিদায় ব্যোমকেশ’ ছবির ট্রেলারে দেখা গেছে, যথারীতি এই ছবিতেও ব্যোমকেশের ভূমিকায় আছেন জনপ্রিয় অভিনেতা আবির চট্টোপাধ্যায়। তবে এবারের ব্যোমকেশ অন্যবারের তুলনায় অনেকটাই আলাদা। এখানে তিনি ৮০ বছর বয়সী প্রবীণ সত্যান্বেষী। এখানে তিনি পুত্রের করা খুনের রহস্য উন্মোচন করবেন। তাঁকে সহায়তা করতে দেখা যাবে নাতি সাত্যকী বক্সীকে। সাত্যকীর ভূমিকায়ও আবির। দ্বৈত চরিত্রে কম যাননি মিস্টার চ্যাটার্জি। তরুণ কিংবা প্রবীণ—দুই চরিত্রেই খাপেখাপ তিনি।

কয়েক বছর ধরে কলকাতার সিনেমায় প্রাধান্য পাচ্ছে ‘ব্যোমকেশ সিরিজ’। বড় বড় প্রযোজনা সংস্থা অর্থলগ্নি করছে এই চরিত্র নিয়ে নির্মিত চলচ্চিত্রে।

অঞ্জন দত্ত কিংবা প্রয়াত পরিচালক ঋতুপর্ণ ঘোষের মতো নির্মাতাও ব্যোমকেশকে করেছেন তুরুপের তাস। আর ব্যোমকেশের ভূমিকায় অভিনয় করেছেন আবির চট্টোপাধ্যায়, যীশু সেনগুপ্ত, এমনকি ধৃতিমান চট্টোপাধ্যায়ের মতো খ্যাতিমান অভিনেতারা।

সূত্রঃ প্রথম আলো 

Comment