No icon

মাহাথিরের সুপারিশে কারাজীবন থেকে মুক্ত আনোয়ার ইব্রাহিম

মালয়েশিয়ার কারাবন্দী নেতা আনোয়ার ইব্রাহিম ছাড়া পেয়েছেন। এর ফলে তাঁর রাজনীতিতে ফিরে আসার পথ তৈরি হলো। আজ বুধবার রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

২০১৫ সালে সমকামিতা ও দুর্নীতির অভিযোগে ৭০ বছর বয়সী আনোয়ার ইব্রাহিমকে কারাদণ্ড দেওয়া হয়। তবে তাঁর দাবি, রাজনৈতিক ক্যারিয়ারকে ধ্বংস করার জন্যই তাঁকে শাস্তি দেওয়া হয়েছে।

গত বৃহস্পতিবার মালয়েশিয়ার নতুন প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেন মাহাথির মোহাম্মদ। প্রধানমন্ত্রী পদে শপথগ্রহণের মধ্য দিয়ে বিশ্বের সবচেয়ে বয়স্ক নির্বাচিত নেতা হিসেবে ইতিহাস গড়েন মাহাথির। এর আগে টানা প্রায় ২২ বছর মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন তিনি। ২০০৩ সালে তিনি ক্ষমতা থেকে সরে যান।

দায়িত্ব গ্রহণের পরপরই আনোয়ার ইব্রাহিমের মুক্তির জন্য সুপারিশ করেন মাহাথির। আজ আনোয়ার ইব্রাহিম রাজক্ষমা লাভ করেন। এরপরেই মুক্তি মেলে তাঁর। আনোয়ার ইব্রাহিম কুয়ালালামপুরের চেরাস রিহ্যাবিলিটেশন হসপিটালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। ক্ষমা ঘোষণার পর তিনি হাসপাতাল থেকে বের হয়ে আসেন।

মালয়েশিয়ার বিরোধীদলীয় জোট পাকাতান হারাপান ২০১৮ সালের জানুয়ারি মাসে মাহাথিরকে প্রধানমন্ত্রী পদে প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা করে। নাজিবের পতনের জন্যই একসময়ের বিরোধীদের সঙ্গে হাত মিলিয়েছেন বলে জানিয়েছেন মাহাথির। এও বলেছেন, নির্বাচিত হলেও বেশি দিন ক্ষমতায় থাকবেন না তিনি। ‘পুরোনো শত্রু’ আনোয়ার ইব্রাহিমকে ক্ষমতায় এনে বিদায় নেবেন। মাহাথির মোহাম্মদ ও আনোয়ার ইব্রাহিমের মাঝে এই প্রীতি অনেককেই অবাক করেছে। কারণ, মাহাথির মোহাম্মদ প্রথমবার প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর আনোয়ার ইব্রাহিমকে ২০ বছরের জন্য জেলে পাঠিয়েছিলেন। পরে ২০১৫ সালে আবারও জেলে যান আনোয়ার ইব্রাহিম।

সূত্রঃ প্রথম আলো 

Comment