No icon

এশিয়া

পুরুষদের একাকিত্ব ঘোচাতে পুতুল

চীনে নারী-পুরুষের অনুপাতে ব্যাপক তারতম্য দেখা দিয়েছে। নারীর তুলনায় বেড়ে গেছে পুরুষের সংখ্যা। বিয়ের জন্য সেখানে কনে অপহরণের ঘটনাও প্রকাশিত হয়েছে বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে। এই অবস্থায় পুরুষদের একাকিত্ব ঘোচাতে নারীর আদলে ‘স্মার্ট’ পুতুল তৈরি করছে চীনের একটি প্রতিষ্ঠান। এই পুতুল কথা বলতে পারবে, বাজনা শোনাতে পারবে। আবার প্রয়োজন হলে বাসনকোসন ধোয়ার কাজও তদারকি করবে!

চীনের উত্তর-পূর্বাঞ্চলের বন্দরনগরী দালিয়ানে রয়েছে ‘এক্সডল’ নামের একটি প্রতিষ্ঠান। এর কারখানাতে তৈরি হচ্ছে নারীর আদলে পুতুল। শুধু পুতুল তৈরি করেই ক্ষান্ত হননি এক্সডলের প্রোগ্রামাররা। পুতুলে মানুষের অভিব্যক্তি ফুটিয়ে তুলতেও দিনরাত পরিশ্রম করছেন তাঁরা। কথা শেখানো হচ্ছে নতুন পুতুলকে। একটি চেয়ারে বসিয়ে পুতুলকে জিজ্ঞেস করা হলো, ‘তোমার নাম কী?’ জবাবে পুতুলটি রোবটের মতো বলে ওঠে, ‘আমার নাম হুসিআদি। তবে তুমি আমাকে বেবি বলেও ডাকতে পারো। কিন্তু মন ভালো না থাকলে আমি কোনো উত্তর দেব না।’

একটি ছোট প্রশ্নের জবাবে অনর্গল এত কথা বললেও, পুতুলটির ঠোঁট কিন্তু নড়ছিল না। অর্থাৎ কিছু রেকর্ড করা উত্তর দিচ্ছিল হুসিআদি। নির্মাতা প্রতিষ্ঠান এক্সডল বলেছে, এ ধরনের প্রোটোটাইপ পুতুলের মধ্যে আগামী বছর কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা যোগ করার পরিকল্পনা আছে তাদের। এতে পুতুলগুলো অনেকটাই মানুষের মতো হয়ে উঠবে। কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা থাকলে এই পুতুলই চীনের হাজারো অবিবাহিত পুরুষের একাকিত্ব দূর করতে পারবে।

বর্তমানে চীনের মোট জনসংখ্যা প্রায় ১৪০ কোটি। দেশটিতে এখন নারীর চেয়ে পুরুষের সংখ্যা ঢের বেশি। অঙ্কের হিসাবে ৩ কোটি ৩৬ লাখ। বিশ্লেষকেরা বলছেন, নারী ও পুরুষের সংখ্যায় এই তফাত তৈরি হয়েছে আগে নেওয়া এক সন্তান নীতির কারণে। এ ছাড়া বিয়ের পর ছেলে সন্তানই চান দেশটির বেশির ভাগ দম্পতি। এই ঐতিহ্য রক্ষা করতে গিয়ে সেখানে অবৈধ গর্ভপাতও ঘটছে অহরহ। এসবের প্রতিক্রিয়ায় চীনে এখন প্রতি ১০০ জন মেয়ের বিপরীতে জন্ম নিচ্ছে ১১৪ ছেলে।

এক্সডল কোম্পানির বিপণন পরিচালক উ জিংলিয়াং বলেছেন, তাঁদের তৈরি পুতুল চীনের সামাজিক সমস্যা মেটাতে পারবে। তিনি বলেন, ‘চীনে নারীদের সংখ্যা কমে গেছে। এ কারণেই এসব পুতুলের চাহিদা রয়েছে। তবে শুধু যৌনতার কথা ভেবেই পুতুল তৈরি করা হচ্ছে না। এগুলো আপনার সঙ্গে কথোপকথন চালাতে পারবে এবং প্রয়োজনে চিকিৎসা সহকারী বা অভ্যর্থনাকারী হিসেবেও কাজ করতে পারবে।’

হুসিআদির দাম পড়বে চার হাজার মার্কিন ডলার। একটি মোবাইল অ্যাপ বা মৌখিক নির্দেশনায় পুতুলটি চালানো যায়। ওয়াই-ফাইয়ের মাধ্যমে ইন্টারনেটে যুক্ত এই পুতুল ব্যবহারকারীর মৌখিক নির্দেশনার উত্তর দিতে পারে। পুতুলের গড় উচ্চতা ৫ ফুট ২ থেকে ৫ ফুট ৭ ইঞ্চি। প্রতি মাসে ৪০০টি পুতুল তৈরি করছে নির্মাতা প্রতিষ্ঠান এক্সডল। ভবিষ্যতে চাহিদা আরও বাড়বে বলে মনে করছে প্রতিষ্ঠানটি।

Comment