No icon

ডাহা ফেলের রেকর্ড নিয়ে ভাবছেন না কোহলি!

ইংল্যান্ডে বিরাট কোহলি টেস্টে ১০ ইনিংস ব্যাট করে রান করেছেন ১৩৪। গড় ১৩.৪। সবের্াচ্চ ইনিংস ৩৯ রানের। কোনো ফিফটি বা সেঞ্চুরি নেই। দুবার আউট হয়েছেন শূন্য রানে। এটি ২০১৪ সালের রেকর্ড

ফেল বলে ফেল! রীতিমতো লাড্ডুগুড্ডু! বিরাট কোহলির গড়টা তাঁর নিজেরই বিশ্বাস হওয়ার কথা নয়। ইংল্যান্ডে ৫ টেস্ট খেলেছেন। মোট রান ১৩৪। সর্বোচ্চ ইনিংসটাও ৩৯ রানের। যেটি বলে দিচ্ছে কোনো ফিফটিই নেই, সেঞ্চুরি তো দিল্লি দূর অস্ত। ১০ ইনিংসে গড় ১৩.৪। গতবার ইংল্যান্ড সফরে রীতিমতো নাকানিচুবানি খেয়েছেন। অফস্টাম্পে পড়ে বেরিয়ে যাওয়া বলে কোহলিকে দেখাচ্ছিল আনাড়ি এক ব্যাটসম্যান।
এই সেই কোহলি যিনি শচীন টেন্ডুলকারেরও সব রেকর্ড ভেঙে দেওয়ার পথে আছেন। সেই কোহলির ইংলিশ ভূমে রেকর্ড যদি এত বাজে হয়, দু-চারটে খোঁচা হজম তো করতে হবেই। যদিও বলা হচ্ছে, এবার কোহলি সব অঙ্ক বদলে দেবেন। ইংল্যান্ডে নিজের শোচনীয় রেকর্ডটা মুছে দেওয়ার প্রতিজ্ঞা কোহলির মধ্যেও দেখা যাচ্ছে। ঢের আগে থেকে ইংলিশ কন্ডিশনে মানিয়ে নিতে কাউন্টিও খেলতে চেয়েছিলেন জাতীয় দল থেকে সাময়িক ছুটি নিয়ে। যদিও সবকিছু পরিকল্পনামাফিক এগোয়নি চোটের কারণে। তবে আজ ৫ টেস্টের সিরিজ শুরুর আগে কোহলি অন্য দাবিই করলেন।
নিজেকে টেস্টের সেরা ব্যাটসম্যান প্রমাণ করতে হলে ইংল্যান্ডে ভালো করতে হবে। এ যেন ক্রিকেটের অলিখিত শর্তগুলোর একটি। ২০১৪ সালের সফরে কোহলির ব্যর্থতা, গত কয়েক বছরে টেস্ট ব্যাটসম্যান হিসেবেও নিজেকে আরেক উচ্চতায় নিয়ে যাওয়া, এবার অনেক প্রস্তুত হয়ে অভিজ্ঞতার ভাঁড়ারকে সমৃদ্ধ করে ইংল্যান্ডে আসা...এসব নিয়ে স্বাভাবিকভাবেই মিডিয়ায় খুব কথাবার্তা হচ্ছে। তবে কোহলি কাল সংবাদ সম্মেলনে সাফ বলে দিলেন, ‌‘মিডিয়ায় কী লেখা হয় না হয় আমি পড়ি না। আগে বয়স কম ছিল। অভিজ্ঞতা কম ছিল। বাইরে কে কী বলল এসব খুব ঝামেলায় ফেলত। কারণ তখন কোথায় কী লেখা হচ্ছে এসব অনেক পড়তাম।’
এখন কেন পড়েন না, সেই ব্যাখ্যাও দিলেন, ‘এসবের পেছনেই যদি আমার সব শক্তি খরচ করে ফেলি তাহলে তো আমি আমার চিন্তাভাবনার প্রতি অন্যায়ই করব। কারণ মাঠে নেমে খেলাটা আমাকেই খেলতে হবে। মাঠের বাইরের যেসব লোক অনেক কিছু লেখে, নানা রকম ব্যাপার অনুমান করে, তারা তো আর খেলে দেবে না।’
ফলে শুধু তাঁর সমালোচক নয়; যেসব গুণগ্রাহী বলছেন, এবার কোহলি ফাটিয়ে দেবেন; তাদের নিয়েও কোহলির কোনো মাথা ব্যথা নেই। অন্তত তেমনটাই তিনি বললেন, ‘কোনো একটা দেশে নিজেকে প্রমাণ করতে হবে এমন কোনো ভাবনাচিন্তা আমার মাথায় নেই। আমি শুধু দলের জন্য পারফর্ম করতে চাই। অবশ্যই আমি রান করতে চাই, কিন্তু সেটা দলের জন্যই। ভারতীয় ক্রিকেটকে আরেকটি ধাপে পৌঁছে দিতেই।’

সুত্রঃ প্রথম আলো 

Comment